সোভিয়েত নেতা মিখাইল গর্বাচেভের মাথায় কিসের দাগ?

সোভিয়েত ইউনিয়ন ভাঙার রূপকার মিখাইল গর্বাচেভ দীর্ঘদিন অসুস্থতায় ভুগে মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

মঙ্গলবার রাশিয়ার সেন্ট্রাল ক্লিনিকাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এই মিখাইল গর্বাচেভের মাথার খুলির ওপর লাল ও কালচে রঙের বিশাল বড় একটি দাগ রয়েছে। (ওয়াশিংটন পোস্টের লিংক)

এটি কিসের দাগ?

১৯৮৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টে এ নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছিল। একজন কৌতুহলী পাঠক ওয়াশিংটন পোস্টের কাছে এমন প্রশ্ন করেছিলেন।

গণমাধ্যমটি জানায়, মিখাইল গর্বাচেভের খুলির ওপর যে লাল কালচে দাগটি দেখা যাচ্ছে এটি আসলে তার জন্ম দাগ। এটিকে পোর্ট ওয়াইন দাগ বলা হয়। লাল রঙের ওয়াইনের মতো এটির রঙ হওয়ায় এই নাম দেওয়া হয়েছে। এটি সাধারণত জন্মের পর থেকেই দেখা যায়। বিশেষ করে মুখে অথবা হাতে এই দাগ তৈরি হয়। রক্তের ত্রুটিপূর্ণ গঠনের কারণে এমনটি হয়। এই দাগ সারাজীবন থাকে। তবে সময়ের সাথে সাথে কিছুটা মিশে যায়।

এদিকে কোনো ধরনের রক্তপাত ছাড়াই বিশ্বে স্নায়ুযুদ্ধের অবসানে ভূমিকার কৃতিত্ব দেওয়া হয় গর্বাচেভকে, কিন্তু একইসঙ্গে রাশিয়ায় তাকে সমাজতন্ত্রের পতনের জন্য দায়ী করা হয়।

মিখাইল গর্বাচেভের মৃত্যুতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন থেকে শুরু করে পশ্চিমারা নেতারা শোক জানিয়েছেন।

সূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট, রয়টার্স, বিবিসি

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top