আইসিটি শিক্ষকদের বিশেষ গণবিজ্ঞপিতে আবেদনের সুযোগের নির্দেশ!

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) এ আদেশ দেন।একইসঙ্গে বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে এনটিআরসিএর নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আবেদনকারীদের আবেদন করার অনুমতি দিতে সরকারের সংশ্লিষ্টদের নিষ্ক্রিয়তা এবং ব্যর্থতা কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের (মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিভাগ) এর সচিব ও এনটিআরসি’র চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট চারজনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আবেদনকারীদের আবেদন করার সুযোগ প্রদানের নির্দেশনা চেয়ে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিষয়ে এমপিওভুক্ত ১০১ জন শিক্ষকের করা একটি রিট পিটিশনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে এদিন রিটকারীদের পক্ষে ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি বিপুল বাগমার।রিটকারীদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবলকাঠামো ও এম.পি.ও নীতিমালা-২০২১ এর ১১.২০ অনুসারে ইনডেক্সধারী শিক্ষক-কর্মচারী সমপদ/সমস্কেলে প্রতিষ্ঠান পরিবর্তনের ক্ষেত্রে এ নীতিমালার পরিশিষ্ট ‘ঘ’ তে বর্ণিত শিক্ষাগত যোগ্যতা (শ্রেণি/বিভাগ) প্রযোজ্য হবে না; সেক্ষেত্রে তাদের প্রথম নিয়োগকালীন শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রযোজ্য হবে।

তবে এ নীতিমালা জারির তারিখ থেকে নতুনভাবে উচ্চতর পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে পরিশিষ্ট ‘ঘ’ তে বর্ণিত ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। এনটিআরসিএ তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির ধারাবাহিকতায় বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তি-২০২২ প্রকাশ করে।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।
ওই বিজ্ঞপ্তিতে স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, কারিগরি ও ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা বিভাগে এমপিও নন-এমপিও পদের জন্য মোট ১৫১৬৩ টি ফাকা আসনের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

এর মধ্যে এমপিওভুক্ত ১২ হাজার ৮০৭টি এবং নন-এমপিও ২ হাজার ৩৫৬টি আসনের জন্যে অনলাইন আবেদন গ্রহণের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু গণবিজ্ঞপ্তিতে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিষয়ে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য আবেদনের কোন সুযোগ রাখা হয়নি।

রিটকারীদের আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া আরও বলেন, ২০১৫ সালের ১৪ জুন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জনবলকাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১০ সংশোধন করা হয় এবং পূর্বের স্বীকৃত সহকারী শিক্ষকের (কম্পিউটার) শিক্ষাগত যোগ্যতা বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক ডিগ্রি/সমমান এবং সরকার অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান হতে কম্পিউটার বিষয়ে ন্যূনতম ০৬ (ছয়) মাসের প্রশিক্ষণের সংশোধন করে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড হতে তিন বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার সায়েন্স ডিগ্রি করা হয়।

কিন্তু এরইমধ্যে আবেদনকারীরা পূর্বের নীতিমালা অনুসারে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি/কম্পিউটার বিষয়ে এনটিআরসি কর্তৃক নিবন্ধন গ্রহণ করলেও তাদের বিশেষ বিজ্ঞপ্তি তথা শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়া হয়নি। তাই তারা সংক্ষুব্ধ হয়ে আদালতে এ রিট দাখিল করলে আদালত আজ শুনানি শেষে এ রুল জারি করেন। একইসঙ্গে আইসিটি বিষয়ে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগ দিতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top