কে পাচ্ছেন টাঙ্গাইল-০৭ উপনির্বাচনে নৌকার টিকিট ?

টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনের উপনির্বাচনে মা-ছেলেসহ ৯ জন নেতা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। আগামী ১৬ জানুয়ারি এ উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

গত ১৬ নভেম্বর পরপর চারবার নির্বাচিত স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন মারা যান। তার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়।

উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেতে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা ব্যক্তিরা হলেন- প্রয়াত সংসদ সদস্যের স্ত্রী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ঝর্ণা হোসেন, তার ছেলে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসম্পাদক ব্যারিস্টার তাহরীম হোসেন সীমান্ত, জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও টাঙ্গাইল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খান আহমেদ শুভ, জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য অবসরপ্রাপ্ত মেজর খন্দকার আবদুল হাফিজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ওয়াহিদ ইকবাল ও তৌফিকুর রহমান তালুকদার রাজিব, মধুমতি ব্যাংকের পরিচালক ও ইবিএস গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক রাফিউর রহমান খান ইউসুফজাই এবং উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জ্বল।

তাহরীম হোসেন বলেন, বাবার রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়ন করা প্রয়োজন, যা আওয়ামী লীগদলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে করতে হবে। দল যাকে মনোনয়ন দেবে, তিনি তার পক্ষেই কাজ করবেন বলে জানান।

খান আহমেদ শুভ বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা দলের ত্যাগীদের সব সময় মূল্যায়ন করে থাকেন। তিনি যাকে মনোনয়ন দেবেন তার পক্ষেই কাজ করব।

মীর শরীফ মাহমুদ বলেন, মনোনয়নপত্র যে কেউই সংগ্রহ করতে পারেন। তবে দল যাকে মনোনয়ন দেবে, সবাই তার পক্ষেই কাজ করবেন।

উল্লেখ্য যে-টাঙ্গাইল-৭ সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এই আসনে আগামী ১৬ জানুয়ারি ভোট অনুষ্ঠিত হবে।মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশনের ৯১তম কমিশন সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন ইসি সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার।আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে কমিশন সভায় উক্ত তফসিল অনুমোদন দেওয়া হয়।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমার শেষ তারিখ ১৫ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই ২০ ডিসেম্বর ও প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৭ ডিসেম্বর এবং ভোট ১৬ জানুয়ারি।

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top