বিচারককে টাঙ্গাইল ছাড়ার হুমকি দিয়ে বেনামি চিঠি -প্রেরক কে ধরতে তৎপর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনী!

টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিনকে টাঙ্গাইল ছেড়ে না গেলে হত্যার হুমকি দিয়ে জঙ্গি সংগঠনের নামে বেনামি চিঠি পাঠানো হয়েছে।

বিচারককে হত্যা করতে ব্যর্থ হলে তার স্বজন আউট সোর্সিং হিসেবে প্রসেস সার্ভার পদের এক কর্মচারীকে অপহরণের হুমকি দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাবে উপস্থিত সাংবাদিকদের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন বিষয়টি জানান।আদালত সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) একটি খাকি রঙয়ের খামে বিচারক খালেদা ইয়াসমিনের কাছে চিঠি আসে। সেখানে প্রেরকের স্থানে ‘জুবায়ের রহমান’ লেখা রয়েছে।বিচারক খালেদা ইয়াসমিন সাংবাদিকদের জানান, চিঠিটি পাওয়ার পর আইনশৃংখলা বাহিনীকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। তিনি ও তার পরিবারের লোকজন বর্তমানে ভয়ের মধ্যে রয়েছেন।

জেলা পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় আমার টাঙ্গাইল কে জানান, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। সেই সঙ্গে বিচারক ও তার পরিবারের লোকজনদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর কোম্পানী কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, র‌্যাবের সকল টিম বিষয়টি নিয়ে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে।
হুমকি দেওয়ার কারণ হিসেবে চিঠিতে বলা হয়েছে, খালেদা ইয়াসমিন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে আসার পর থেকে অনেকগুলো বড় ধরনের মামলার রায় দিয়েছেন। তাতে তাদের লোকজনের বড় ধরনের ক্ষতি হয়েছে।

খালেদা ইয়াসমিনের জীবনের প্রতি মায়া থাকলে তাকে টাঙ্গাইল থেকে বদলি হয়ে চলে যেতে বলা হয়েছে চিঠিতে। চিঠিতে বলা হয়েছে, যদি বিচারককে হত্যা করতে ব্যর্থ হয়, তবে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে আউট সোর্সিং হিসেবে প্রসেস সার্ভার পদে যিনি কর্মরত রয়েছেন, তাকে অপহরণ করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হবে। মুক্তিপণ দেওয়া না হলে তাকে হত্যা করা হবে মর্মে হুমকি দেওয়া হয়েছে।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই রহস্যজনক চিঠির এই হুমকিদাতাকে খুঁজে পাইনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনী। তবে খুব শিগগিরই তাকে খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top