টাঙ্গাইলে শেখ হাসিনা সেতুর অ্যাপ্রোচ সড়কে ধস, দুর্ঘটনার আশঙ্কা

টাঙ্গাইলের নাগরপুর ধলেশ্বরী নদীর ওপর স্থাপিত শেখ হাসিনা সেতুর অ্যাপ্রোচ সড়কের একাংশ ধসে পড়েছে। এতে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গত দুইদিনের ভারি বর্ষণের ফলে এ ধসের সৃষ্টি হয়েছে। তবে ধস সত্ত্বেও ঝুঁকি নিয়েই এ সড়ক দিয়ে চলাচল করছে যানবাহন।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সেতুর শেষাংশ থেকে নির্মিত অ্যাপ্রোচ সড়কের প্রথমাংশই ধসে গেছে। এতে করে সড়কের এক পাশে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কের গাইড ওয়ালের ব্লকগুলো সরে গিয়ে মাটি ধসে গেছে। এতে করে সেতুর ওই স্থানে যে কোনো ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেতুটি ২০১৭ সালে উদ্বোধন করা হয়। তবে এক বছর যেতে না যেতেই সেতুর উপরিভাগের বিভিন্ন স্থানের ঢালাই উঠে গিয়ে সেতুতে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এরপর থেকেই সেতুর ওপর দিয়ে খুব ধীরগতিতে যানবাহন চালাতে হচ্ছে চালকদের। নতুন করে এবার অ্যাপ্রোচ ধসে গেল।

সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক রহমত, ফরিদ ও সাইফুল ইসলামসহ কয়েক বলেন, দ্রুত সেতু ও এর অ্যাপ্রোচ সড়কের সংস্কার প্রয়োজন। তা নাহলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী এস এম আলামিন জানান, কেদারপুর শেখ হাসিনা সেতুর উপরিভাগের গর্ত ও এর অ্যাপ্রোচ সড়কে ধসের বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমরা ইতোমধ্যে সেখানে কাজ শুরু করে দিয়েছি। সেখানে গাইড ওয়ালের মাধ্যমে অ্যাপ্রোচ সড়ক স্থায়ীভাবে মেরামত করা হচ্ছে, যাতে করে বৃষ্টির পানি আর লিক করতে না পারে। ব্রিজের উপরিভাগের গর্তগুলো মেরামত করে দেয়া হবে বলেও তিনি জানান।

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top