টাঙ্গাইলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারী গণধর্ষণ : গ্রেফতার ২

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর এক নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত ও মামলায় অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। মঙ্গলবার (১৫ জুন) মির্জাপুর এবং সখীপুর উপজেলা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো সখীপুর উপজেলার হাতিবান্ধা ইউনিয়নের বাজাইল বড়চালা গ্রামের টেংগু সরকারের ছেলে দিনা সরকার (৩০) ও নারায়ন চন্দ্র সরকারের ছেলে মন্টু সরকার (৩২)।

দুপুরে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘থানায় মামলা দায়ের হলে আসামিরা আত্মগোপনে চলে যায়। পরে ডিবি পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত দুই আসামিকে গ্রেফতার করে। পলাতক অপর আসামি সবদুল মিয়াকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

গ্রেফতারকৃতদের আজ টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হবে বলে জানান তিনি।

এর আগে এ ঘটনায় অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বেলা ১১টায় টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী বাংলাদেশ কোচ আদিবাসী ইউনিয়ন এ মানবন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কোচ আদিবাসী ইউনিয়নের যুগ্ম-আহ্বায়ক রতন কুমার রায়, বিশ্বজিৎ কোচ, বাংলাদেশ গারো ছাত্রসংগঠনের সভাপতি জন যেত্রা, অন্যন্যা রায় প্রমুখ। এসময় তারা জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানান।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ১১ জুন রাত পৌনে ১টার দিকে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ওই নারীকে বাড়ির পশ্চিম পার্শ্বে ডেকে নিয়ে অভিযুক্ত দিনা সরকার, মন্টু সরকার এবং সবদুল মিয়া ধর্ষণ করে এবং শরীরের নানা স্থানে কামড়ে জখম করে পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে টাঙ্গাইল জেনারের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় গত ১৩ জুন ওই নারী বাদি হয়ে থানায় তিনজনেক আসামি করে মামলা দায়ের করেন। বর্তমানে ওই নারী টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

Share this post

PinIt
submit to reddit

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top